তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla

আচ্ছালামু আলাইকুম প্রিয় ভিজিটর - MR Laboratory এর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম । আজকে আমি তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla নিয়ে আলোচনা করে এই আর্টিকেল সম্পন্ন করব । আরর্টিকেলের মূল বিষয় বস্তু সম্পর্কে জানতে পেইজ সূচি তালিকা দেখুন।

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla সম্পর্কে আরো জানতে গুগলে সার্চ করুন - MRLaboratory.com

 

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ : আসসালামু আলাইকুম প্রিয় ভাই ও বোন। আবু হোরায়রা রা: থেকে বর্ণিত একটি হাদিসে এসেছেঃ “আমি রাসূলুল্লাহ (সাঃ) কে বলতে শুনেছি। আফজালুস সালাতি বাদাল মাফরুদাতি সালাতুল লাইলি’ অর্থাৎ ফরজ নামাজের পর সবচেয়ে উত্তম নামাজ হলো তাহাজ্জুদের নামাজ।” – (মুসলিম, তিরমিজি, নাসাঈ)

তাহাজ্জুদ নামাজ‌ কি?

তাহাজ্জুদ (تهجد‎‎) শব্দের অর্থ ঘুম থেকে জাগা। তাহাজ্জুদ নামাজ‌ বা রাতের নামাজ হচ্ছে একটি নফল ইবাদত, ফরয নামাজের পর অন্যান্য সুন্নাত ও নফল সব নামাযের মধ্যে তাহাজ্জুদ নামাজের গুরুত্ব ফজিলত সবচেয়ে বেশী। তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ হওয়ার আগে রাসুলুল্লাহ (সাঃ)-এর ওপর তাহাজ্জুদ নামাজ বাধ্যতামূলক ছিল। তাই তিনি জীবনে কখনো তাহাজ্জুদ নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকেন নি। তবে উম্মতে মুহাম্মদির জন্য এটা সুন্নাতে গায়রে মুয়াক্কাদা অর্থাৎ এ নামাজ আদায় করলে অশেষ পুণ্য লাভ করা যায়, কিন্তু আদায় করতে না পারলে কোনো গুনাহ হবে না।

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ সহ নিম্নে দেওয়া হলঃ-

বাংলা উচ্চারণঃ “নাওয়াইতু আন উছোয়াল্লিয়া লিল্লাহি তা'আলা রাকাতাই ছলাতিত তাহাজ্জুদী সুন্নাতু রাসুলিল্লাহি তা'আলা মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারিফাতি আল্লাহু আকবার।”

অর্থঃ “আমি আল্লাহর ওয়াস্তে কেবলার দিকে মুখ করিয়া তাহাজ্জুদের দু-রাকআত সুন্নাত নামাজের নিয়ত করিলাম। আল্লাহু আকবার।”

তাহাজ্জুদ নামাজের সময়

ইশার নামাজ আদায়ের পর থেকে শুরু করে সুবহে সাদেকের আগ পর্যন্ত সালাতুল লাইল বা তাহাজ্জুদের নামাজ পড়া যায়। তবে অর্ধ রাতের পর থেকে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়া ভালো। তবে শেষ রাতে তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করা সর্বোত্তম।

তাহাজ্জুদ নামাজের ওয়াক্ত এবং রাকাআত

ইশার নামাজ আদায়ের পর থেকে সুবহে সাদেকের আগ পর্যন্ত সালাতুল লাইল বা তাহাজ্জুদ নামাজ পড়া যায়। কুরআনে রাতের কিছু অংশে তাহাজ্জুদের যে তাকীদ করা হয়েছে তার মর্ম এই যে, রাতের কিছু অংশ ঘুমিয়ে থাকার পর উঠে নামায পড়া। তাহাজ্জুদের সর্বোত্তম সময় এই যে, এশার নামাযের পর লোকেরা ঘুমাবে। তারপর অর্ধেক রাতের পর উঠে নামায পড়বে। নবী (সাঃ) কখনো মধ্য রাতে, কখনো তার কিছু আগে অথবা পরে ঘুম থেকে উঠতেন এবং আসমানের দিকে তাকিয়ে সূরা আলে-ইমরানের শেষ রুকুর কয়েক আয়াত পড়তেন। তারপর মেসওয়াক ও অযু করে নামায পড়তেন।


তাহাজ্জুদের নামাজ ২ থেকে ১২ রাকাআত পর্যন্ত পড়ার বর্ণনা পাওযা যায়। অর্থাৎ, সর্ব নিম্ন ২ রাকাআত আর সর্বোচ্চ ১২ রাকাআত পড়া যেতে পারে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ৮ রাকাআত তাহাজ্জুদ পড়তেন। তাই ৮ রাকাআত তাহাজ্জুদ পড়াই ভালো। তবে এটা আবশ্যক নয়। তাহাজ্জুদের নামাজের কোনো কাজা নেই।


তাহাজ্জুদের নামাজ পড়ার নিয়ম

এখানে আমরা তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ম নিয়ে জানব ইনশাআল্লাহ। তাহাজ্জুদ একটি নফল ইবাদত। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) তাহাজ্জুদ নামাজ দুই রাকাত দুই রাকাত করে আদায় করতেন। তিনি কখনো ৪ রাকাত, কখনো ৮ রাকাত এবং কখনো ১২ রাকাত পড়েছিলেন। কিন্তু কেউ যদি এ নামাজ ২ রাকাত আদায় করেন, তাহলেও তার তাহাজ্জুদ আদায় হবে।


হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেছেন, “যে ব্যক্তি এশার পর দুই বা ততোধিক রাকাত নামাজ পড়ে নেয়, সে হবে তাহাজ্জুদের ফজিলতের অধিকারী।”


যে কোনো সুরা দিয়েই এ নামাজ পড়া যায়। নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যথাসম্ভব লম্বা কেরাত, লম্বা রুকু ও সেজদা সহকারে একান্ত নিবিষ্ট মনে তাহাজ্জুদ নামাজ আদায় করতেন। তাই লম্বা কেরাতে তাহাজ্জুদ আদায় করা উত্তম। কেরাত উঁচু বা নিচু উভয় আওয়াজে পড়া জায়েজ আছে। তবে উচু স্বরে পড়া যদি কারও কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায় তবে চুপিচুপি পড়া কর্তব্য।


তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়মঃ

– তাকবিরে তাহরিমা ‘আল্লাহু আকবার’ বলে নিয়ত বাঁধা।

– অতঃপর ছানা পড়া।

– সুরা ফাতেহা পড়া।

– অন্য সূরা বা সূরার অংশবিশেষ বা কেরাত পড়া। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অনেক লম্বা কেরাত পড়তেন। অতঃপর অন্যান্য নামাজের ন্যায় রুকু, সেজদা আদায় করা। এভাবেই দ্বিতীয় রাকাআত আদায় করে তাশাহহুদ, দরূদ ও দোয়া মাছুরা পড়ে সালাম ফেরানোর মাধ্যমে নামাজ সম্পন্ন করা।


এভাবে দুই দুই রাকাআত করে ৮ রাকাআত তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করা উত্তম।আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে যথাযথভাবে রাতের শেষ প্রহরে তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত,তাহাজ্জুদ নামাজ কত রাকাত,তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ম ও নিয়ত,তাহাজ্জুদ নামাজের দোয়া,তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ম,তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম,তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ত,তাহাজ্জুদ নামাজে কোন সূরা পড়তে হয়,তাহাজ্জুদ নামাজ কয় রাকাত,তাহাজ্জুদ নামাজ,তাহাজ্জুদ নামাজের সময়,তাহাজ্জুদ নামাজ সুন্নত না নফল,তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত,পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের নিয়ম,তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ,তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলায়,তাহাজ্জত নামাজের সময়

আপনি আসলেই নিওটেরিক আইটির একজন মূল্যবান পাঠক । তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla এর আর্টিকেলটি সম্পন্ন পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ । এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কেমন লেগেছে তা অবস্যয় আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন । আরো পড়ুনঃ -

তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla, তাহাজ্জুদ নামাজের নিয়ত বাংলা উচ্চারণ | Tahajjud namaz porar niom bangla
পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার মন্তব্য জানান
comment url
এই ওয়েবসাইট বিক্রয় করা হবে
যোগাযোগ করুন